খাবাররান্না-বান্না

মচমচে ক্রিস্পি পেঁয়াজের বেরেস্তা ভাঁজা ও সংরক্ষণের রেসিপি

পেঁয়াজের বেরেস্তা ভাঁজামচমচে ক্রিপ্সি পেঁয়াজের বেরেস্তা ভাঁজা ও সংরক্ষনের রেসিপি

পেঁয়াজের বেরেস্তা রেসিপিঃ

সবাই কে স্বাগত জানাই  আজকের পেঁয়াজের বেরেস্তা রেসিপি -তে। আমাদের আজকের রেসিপি পেঁয়াজের বেরেস্তা।

রেসিপির ইউটিউব চ্যানেল লিঙ্কঃ

তবে রেসিপিতে যাওয়ার আগে সবাই কে বলতে চাই এই রেসিপিটির সম্পূর্ণ ভিডিও রয়েছে। আমাদের একটি ইউটিউব চ্যানেল (আলো আসবেই রান্নাঘর) রয়েছে। চ্যানেলের ঠিকানা https://www.youtube.com/channel/UCB11oRJSX_BpZGpkYjKLLGQ

 

যারা যারা আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি এখনো সাবস্ক্রাইব করেননি তারা এখনই সাবস্ক্রাইব করুন এবং পাশে থাকা বেল আইকন টি ক্লিক করুন। তাহলে আমাদের  ইউটিউব চ্যানেল থেকে নতুন নতুন ভিডিওর আপডেট পাবেন।

বেরেস্তার রেসিপির  মূল উপকরণঃ

তো চলুন দেখে নেই আজকের রেসিপি। আজকের রেসিপি পেঁয়াজের বেরেস্তা –র  মূল উপকরণ পেঁয়াজ।

সংরক্ষণ পদ্ধতিঃ

আপনি চাইলে এটি অনেক দিন এয়ার টাইট বক্সে রেখে দিয়ে ব্যবহার করতে পারবেন।

বেরেস্তার ব্যবহারঃ

পেঁয়াজের বেরেস্তা আমরা সাধারণত পোলাও কোরমা এগুলো তে ব্যবহার করে থাকি।

পেঁয়াজের বেরেস্তা তৈরির পদ্ধতিঃ

পেঁয়াজ গুলো রিং করে কেটে নিতে হবে এবং যতটা সম্ভব চিকন করে কাটতে হবে।

তাহলে বেরেস্তা মচমচে হবে আর এর রঙও সোনালী হবে। এবার রিং করে কাটা পেঁয়াজ কুচি গুলো ভেঁজে নিতে হবে। প্রথমে চুলায় একটি প্যান বসিয়ে  নিয়ে তাতে কিছুটা তেল গরম করতে দিতে হবে। পেঁয়াজ কুচি গুলো ডুবো তেলে ভাঁজতে হবে আর চুলার আঁচ মিডিয়াম টু লো থাকবে। তবে প্যানে পেঁয়াজ দেয়ার আগে  তেল টা ভালো ভাবে গরম হয়েছে কিনা তা দেখে নিতে হবে। পেঁয়াজ কুচি গুলো ভাজার জন্য একটা কাঁটা চামচ ব্যাবহার করা ভাল হবে, যাতে রিং গুলো ভালো ভাবে খুলে যায়। এবার লো হিট এ পেঁয়াজ কুচি ভেঁজে নিতে হবে।  কিছুটা ভাঁজা হয়ে আসলে এক টেবিল চা চামচ চিনি দিলে কালারটা খুব ভালো আসে।

পেঁয়াজ গুলো বেশি কালচে করে ভাঁজার দরকার নেই কারণ ঠাণ্ডা হওয়ার পর এগুলো আরো কালচে হয়ে যাবে। তাই একটু ব্রাউন কালার হলে নামিয়ে নেওয়াই উত্তম। এবার একটি পাত্রে বেরেস্তা গুলো নামিয়ে রাখবেন তেল ঝরিয়ে। এখন আপনার বেরেস্তা পরিবেশন এর জন্য রেডি। পেঁয়াজের বেরেস্তা -র কালার ভালো হলে এর থেকে খুব সুন্দর ঘ্রাণ বের হয়। এগুলো পোলাও বিরিয়ানি বা কোরমা তে ব্যবহার করা যাবে। আশা করি আমাদের রেসিপিটি আপনাদের ভালো লেগেছে। ভাল লাগলে লাইক এবং কমেন্ট করতে ভুলবেন না। সবাই কে ধন্যবাদ।

পুরান ঢাকার বিখ্যাত খাবার

0

Leave a Reply

%d bloggers like this: